১৮ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ


বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন কি বাস্তবায়ন​​​​​​​ হয়েছে?

ডেস্ক এডিটর: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সব সময় দেশ ও দেশের মানুষকে প্রাধান্য দিতেন। যত রকমের কুকর্ম সবই নিষেধ করে গেছেন। কিন্তু তার স্বপ্ন এখনও বাস্তবায়ন হয়নি বলে মনে করেন গণফোরামের সভাপতি ও সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল হোসেন। তিনি বলেন, ‘এখন জাতির পিতার ছবি ছাপিয়ে মাদক বিক্রেতারাও পোস্টার ছাপায়। জাতির পিতাকে কেউ এভাবে অপমান করতে পারে। এটা বন্ধ করতে হবে।’

শনিবার (১৭ মার্চ) বিকালে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির গোলটেবিল মিলনায়তনে ‘জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠায় আইনজীবীদের করণীয়’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন- নিরীহ মানুষকে খুন করা যাবে না, সন্ত্রাস ও ধর্ষণ করা যাবে না। যত রকমের কুকর্ম কিছুই করা যাবে না। তিনি তো এসব নিষেধ করে গেছেন। কিন্তু তার এই স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে গেছে।’

‘একজন মাদক বিক্রেতা যদি বঙ্গবন্ধুর ছবি দিয়ে পোস্টার ছাপায়, তাহলে সেটি তাকে অপমান করা হয় কি না? এভাবে জাতির পিতাকে অপমান করা ঠিক নয়। একজন খুনি, সন্ত্রাসী তার পোস্টারে বঙ্গবন্ধুর ছবি ব্যবহার করে! এটা কী রকম খারাপ কাজ! বঙ্গবন্ধুর ছবি, তার নাম কেউ যেন অপব্যবহার না করে, এটা এখন জাতীয় দাবি’ বলেও জানান ড. কামাল।

সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. কামাল আরও বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে জনগণের অংশ এবং পক্ষ হয়ে সেই কথাগুলো আমরা আজ স্মরণ করতে চাই। তিনি আমাদের ক্ষমতার সাথে সাথে দায়িত্বও দিয়ে গেছেন। জনগণ অবশ্যই সেই ক্ষমতার মালিক। তার সঙ্গে দায়িত্বও আছে। এ দেশের সম্পদ লুটপাট হয়ে যাবে আর আমরা কী নীরব দর্শক হয়ে দেখবো!’

সবাইকে জাতির স্বার্থে ঐক্যবদ্ধ থেকে দেশকে এগিয়ে নেয়ার আহ্বান জানিয়ে ড. কামাল বলেন, ‘দেশ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার হয়ে যাচ্ছে। জাতীয় সম্পদ লুটপাট হচ্ছে। অথচ টাকা ফেরত আনার কোনো উদ্যোগ নেই। এসব সম্পদ পাচারকারীকে কাঠগড়ায় এনে দাঁড় করাতে হবে। এ অবস্থায় জনগণ বসে থাকতে পারে না।’

‘আর পত্রিকায় দেখা যায় হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার হচ্ছে, কেউ অস্বীকার করে না। অর্থমন্ত্রীও অস্বীকার করেন না, যা পাচার হচ্ছে তার দলিল আছে। কিন্তু দুঃখের বিষয়- এ ব্যাপারে কোনো কিছু কি করা হচ্ছে?’ যোগ করেন তিনি।

সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী শাহ খসরুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরও বক্তব্য দেন- ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ, সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট জগলুল হায়দার আফ্রিক, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, অ্যাডভোকেট আবুল বাসার, অ্যাডভোকট তারিক হোসেন, অ্যাডভোকেট মোশারফ হোসেন, হাবিবুর রহমান ও আ ব ম মোস্তফা আমিন প্রমুখ।

ফেইসবুকে চাটখিল নিউজ ২৪ ডট কম


Shares